মাঝেমাঝে ভাবি আমরা মানুষ নাকি মরশুম? আমরা সব কিছুতেই Alternative কিছু খুজে বেড়াই, যেমন নিয়মিত জল আসছেনা তো মটর ব্যাবহার করি, ইলেকট্রিক আসছেনা তো ইনভেটার ব্যাবহার করি, রাস্তার কাজ নিম্ন মানের হলে চায়ের আসরে বসে সরকারের সমালোচনা করি আর ভালো রাস্তা ধরে বাড়ী ফিরি। কোথাও রেপ হলে আমাদের মেয়ে ছেলেদের ঘরের বাহিরে যেতে দেইনা। আমরা সব কিছুতেই Alternative কিছু খুজে বেড়াই, কিন্তু নিয়মিত জল বা ইলেকট্রিক না এলে কিংবা রাস্তার কাজ নিম্ন মানের হলে তার প্রতিবাদ করিনা। কোথাও রেপ হলে অপারাধীকে শাস্তি দিতে প্রশাসনকে সাহায্য করিনা এমনকি অপরাধী শাস্তি পেল কিনা তার খুজও রাখিনা। আমরা সবকিছুতেই সরকার আর প্রশাসনের আগবাড়িয়ে সমালোচনা করি আর বিকল্প পথ খুজে বেড়াই কিন্তু কোন কিছুর সমাধান খুজিনা। যদিও বা কেউকেউ প্রতিবাদী হবার চেষ্টা করেন আমরা তাকে সহযোগিতা না করে উল্টো তাকে পেছনে টানতে সমালোচনা করি কিংবা কোন রাজনীতিক দলের চামচা বলে তার মনোবল ভাঙ্গতে চেষ্টা করি। আমরা আর কিছু পারি বা নাপারি “বিজ্ঞ-সমালোচক” হিসেবে নিজেদের ভুমিকা পালনে সর্বদা অগ্রণী ভুমিকা পালন করতে কুন্ঠিত বোধ করিনা। চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে সামাজিক অবক্ষয় নিয়ে হাই-হুতাশ করি কিন্তু পরিবর্তনের কান্ডারি হতে চাইনা। আমরা সবাই চাই খুদিরাম, ভগৎসিংরা সমাজে জন্মাক কিন্তু আমার বাড়িতে নয়, পাশের বাড়িতে। আমরা সর্বদাই দেশ, সরকার, প্রশাসন আর রাজনীতিক দলের সমালোচনায় পঞ্চমুখ থাকি, কিন্তু যখনি দেশ ও সমাজের প্রতি নাগরিক হিসেবে আমাদের কর্তব্য ও দায়িত্ববোধের কথা উঠে তখনি আমাদের সময়ের তাড়না থাকে।
ছোটবেলায় পড়েছিলাম মান আর হুশ যার আছে সেই মানুষ, আজকাল যার মানি আছে আর বেহুঁশ যে সেই বুঝি মানুষ। সময়ের সাথে সাথে মানুষের সঙ্গা টাও বুঝি পাল্টে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *