IMG20180
বিগত ৩রা মার্চ ২০১৮ইং হাফলং ছড়া বাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ফলে শ্রীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা শ্রীঃ বাবলু পাল এর একমাত্র ব্যাবসা প্রতিষ্টান আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। শ্রীঃ বাবলু পাল ত্রিপুরা গ্রামীণ ব্যাঙ্ক, হাফলং শাখা থেকে ঋন নিয়ে ব্যাবসা শুরু করেছিলেন এবং যথাযথ ভাবে ঋন পরিশোধ করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে উনার ব্যাবসা প্রতিষ্টান আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ায় বিগত ২৬শে মার্চ ২০১৮ইং তিনি ত্রিপুরা গ্রামীণ ব্যাঙ্ক হাফলং শাখায় লিখিত ভাবে ঋন মুকুবের জন্য আবেদন জমা করতে গেলে প্রথমে ব্রাঞ্চ ম্যানেজার আবেদন নিতে অনিহা প্রকাশ করেন, অবশেষে অনেক বাক বিতন্ডার পর আবেদন জমা রাখলেও রিসিভ কপি দেন নি।

বিগত ০২রা আগষ্ট ২০১৮ইং শ্রীঃ বাবলু পাল ব্রাঞ্চ ম্যানেজারের নিকট উনার আবেদনের উপর কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে জানতে গেলে ব্রাঞ্চ ম্যানেজার শ্রীঃ প্রবাল কান্তি নাথ মহাশয় শ্রীঃ বাবলু পালের সাথে দূর-ব্যবহার করেন এবং কথায় কথায় ব্রাঞ্চ ম্যানেজারের পদবীর ভয় দেখান। শ্রীঃ বাবলু পাল উনার আবেদনের রিসিভ কপি চাইলে উনি প্রথমে তা দিতে চান নি অবশেষে শ্রীঃ বাবলু পালের বার বার অনুরোধ করায় বিগত ৬দিন থেকে আজ না কাল বলে বলে দৌড়ঝাঁপ করিয়ে আজ ৯ই আগষ্ট ২০১৮ইং উনাকে উনার আবেদন পত্রটি ফিরিয়ে দেন এবং কারণ জানতে গেলে উনি শ্রীঃ বাবলু পালের সাথে দূর-ব্যবহার শুরু করেন।
এলাকাবাসীদের অভিযোগ যে ব্রাঞ্চ ম্যানেজার শ্রীঃ প্রবাল কান্তি নাথ সব-সময়ই অকারনে গ্রাহকদের সাথে দূর-ব্যবহার করেন এবং উনার পদবীর ভয় দেখিয়ে জনগণকে অতিষ্ঠ করে তুলেছেন, যার ফলে গ্রামীণ ব্যাঙ্ক এর পরিষেবা দিন দিন রসাতলে যাচ্ছে। তাই এলাকাবাসী এই ধরনের কান্ড-জ্ঞান হীন ব্রাঞ্চ ম্যানেজারের দ্রুত অপসারনের দাবী জানান।

Legal Disclaimer

Spread the love